লোক চক্ষুর আড়ালে রাজৈরে রাতের অন্ধকারে ঘরে ঘরে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন মুক্তা নেওয়াজ

প্রকাশিত: ৫:১৮ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ১১, ২০২০

লোক চক্ষুর আড়ালে রাজৈরে রাতের অন্ধকারে ঘরে ঘরে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেন মুক্তা নেওয়াজ

 

রাজৈর (মাদারীপুর) প্রতিনিধিঃ

প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সারাদেশে জনসাধারণের চলাচলে সরকার বিধি নিষেধ আরোপ করেছেন প্রশাসন। এতে বিভিন্ন শ্রেণীর পেশার মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছে। যা সমাজের অসহায় ও নি¤œ আয়ের মানুষ পড়েছে চরম বিপাকে। তাই লোক চক্ষুর আড়ালে রাতের অন্ধকারে ঘরে ঘরে অসহায় মানুষের কাছে পৌঁছে দিচ্ছেন নিত্যপ্রয়োজনীয় চাল,ডাল আলু খাদ্য সামগ্রী। এমন একটি ঘটনার কথা শুনে লোকটি কে? তাকে খুজে বেড়ায় সংবাদিক। পরে গতকাল রাতে তাকে খুজে পাওয়া যায়। ক্যামেরার সামনে আসতে চান না তিনি। মাদারীপুরের রাজৈর পৌরসভাসহ ভিভিন্ন এলাকায় এ খাদ্য সামগ্রী বিতরণ চালিয়ে যাচ্ছেন ।
জানাযায়, রাজৈর পৌরসভার বিভিন্ন স্থানে নিজস্ব তহবিল,রাজৈর বাজার বণিক সমিতির ও টেকেহাট বন্দরের সহৃদয়বান ব্যাক্তিদের সহযোগতিায় ভ্যানচালক,ভিক্ষুক,প্রতিবন্ধী ও দরিদ্র অসহায় মানুষের মাঝে বাড়ি বাড়ি গিয়ে চুপ চাপ চাল,ডাল আলুসহ নিত্য প্রায়াজনীয় খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করছেন পৌর মেয়রের সহধর্মীনি মুক্তা নেওয়াজ।
রাজৈর পৌর মেয়রের সহধর্মীনি মুক্তা নেওয়াজ সাংবাদিক জেএম মাহমুদ ইব্রাহীমের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে বলেন,করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ মানুষদের মধ্যে কেউ আছে দিন মজুর, কেউ আছে নিম্মমধ্যবিত্ত, আবার কেউ আছে মধ্যবিত্ত।তাই মনে হলো এদের জন্য কিছু করি। তাই নিজস্ব তহবিল,রাজৈর বাজার বণিক সমিতির ও টেকেহাট বন্দরের হৃদয় বান ব্যাক্তিদের সহযোগতিায় চেষ্টা করে যাচ্ছি।
তিনি বলেন,অনেকে বলতে পারেনা,চাইতে পারে না, তাই আমি চাই এটি মানুষ না জানুক। মানুষকে জানিয়ে দেয়ার কোনো অর্থ হয় না। আমি মহিলা মানুষ তাই কখনও ঈজি বাইকে করে কখনো মাইক্রোবাসে করে কখনো ভ্যানে করে ত্রাণ কাজে সহযোগিতা করার জন্য সঙ্গে দুই বা তিন জনকে সঙ্গে নিয়ে যাই। আমি চাই না আমার এই ত্রান কার্যক্রম প্রচার করতে। চেয়েছিলাম নীরবে দিবো দিতে কেহ যেন না জানে। রাজৈর পৌরসভার ৯ টি ওয়ার্ডের দিন মজুর পরিবারের প্রত্যেককে বাড়ি গিয়ে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। তাই সামর্থ্যের মধ্যে যতদিন সম্ভব এই সহযোগিতা চালিয়ে যাব। পৌরসভার মানুষগুলো যাতে খাবারের জন্য কোনো কষ্ট না পায় সেই জন্য খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অব্যাহত থাকবে ।

মানুষ মানুষের জন্য কথাটি সঠিক করতে মানুষের খেদমত করা উচিত । মানুষের এই বিপদের সময় যদি তাদের পাশেই না দাঁড়াই তাহলে এই প্রতিবেশী হয়ে লাভ কি? আমি একজন প্রতিবেশী হিসেবে কাজ করছি।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের সাথে কানেক্টেড থাকুন

বিজ্ঞাপন

cloudservicebd.com