মেসেঞ্জার আইডি হ্যাক করে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে টাকা,অপরাধীরা থাকছে ধরাছোঁয়ার বাইরে

প্রকাশিত: ৩:০২ অপরাহ্ণ, মে ২৯, ২০২০

মেসেঞ্জার আইডি হ্যাক করে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে টাকা,অপরাধীরা থাকছে ধরাছোঁয়ার বাইরে

মো: তারিকুর রহমান, চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি:সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বর্তমান যুগে একে অপরের সাথে যোগাযোগের সবচেয়ে জনপ্রিয় মাধ্যম। ফেইসবুক, টুইটার, হোয়াটস অ্যাপ, ইনস্ট্যাগ্রাম, মেসেঞ্জার, ইমোর মাধ্যমে দেশ ও বিদেশের মানুষের সাথে খুব সহজেই যোগাযোগ করা যায়।





কিন্তু ডিজিটাল এসব যোগাযোগ মাধ্যমের সাথে পাল্লা দিয়ে বেড়ে চলেছে ডিজিটাল জালিয়াতির মতো অপরাধ। বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই এসব অপরাধীরা থাকছে ধরাছোঁয়ার বাইরে।





সম্প্রতি ব্যাপক হারে বেড়েছে ম্যাসেঞ্জার আইডি হ্যাক করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনা। গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের আইডি হ্যাক করে তার নিকটতম অর্থাৎ যে আইডির সাথে বেশি যোগাযোগ হয় তার কাছে টাকা ধার চাওয়া হচ্ছে। গুরুত্বপূর্ণ ও নিকটতম মানুষ হওয়ার কারণে তারাও কোনরকম প্রশ্ন ছাড়াই দিয়ে দিচ্ছেন টাকা। কিন্তু পরবর্তীতে জানতে পারছেন আইডি হ্যাক হয়েছে। বেশীরভাগ ক্ষেত্রে টাকা নেওয়া হচ্ছে বিকাশে যা নিজের পার্সোনাল নাম্বার বলে চালানো হচ্ছে।





এ্যাকটিভ নাম্বার থেকে বিকাশের মাধ্যমে টাকা নেওয়া হলেও অপরাধীরা ধরা পড়ছেনা। অথচ বর্তমানে বায়োমেট্রিক রেজিষ্ট্রেশন ছাড়া কোন সিম সচল থাকার কথা নয়। পাশাপাশি একটি এনআইডি কার্ডের মাধ্যমে সর্বোচ্চ একটি বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলা যাবে। সবকিছু ডিজিটাল মাধ্যমে হলেও অপরাধীরা সনাক্ত না হওয়ায় প্রশাসনের সক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতেই পারে। আর যদি তা না হয় তাহলে হয়তো রেজিষ্ট্রেশন বাদেও সিম সচল রেখেছে সিম কোম্পানিগুলো।





সম্প্রতি চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার উথলী গ্রামের বেশ কয়েকজনের ম্যাসেঞ্জার আইডি হ্যাক করে বিকাশের মাধ্যমে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে অপরাধী চক্র। বিকাশের নাম্বারটি প্রশাসনের বিভিন্ন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার নিকট পাঠানো হলেও এখনো পর্যন্ত কোন ফলাফল পাওয়া যায়নি।





তবে সচেতনমহলের অনেকেই বলেছেন কারো কাছে এমন করে টাকা ধার চাইলে অবশ্যই তার সাথে কথা বলে নিশ্চিত হয়ে এবং তার ব্যবহৃত নাম্বার ছাড়া অন্য কোন নাম্বারে টাকা দেওয়া ঠিক হবেনা।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের সাথে কানেক্টেড থাকুন

বিজ্ঞাপন

cloudservicebd.com