বেলুড়ে এলে নতুন শক্তি পাওয়া যায়:নরেন্দ্র মোদী

প্রকাশিত: ১২:৪৮ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১২, ২০২০

বেলুড়ে এলে নতুন শক্তি পাওয়া যায়:নরেন্দ্র মোদী

শনিবার বেলুড় মঠেই রাত কাটিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। শ্রীরামকৃষ্ণ, মা সারদা ও স্বামী বিবেকানন্দকে নিবেদন করা ভোগ-প্রসাদ গ্রহণ করেছেন। রবিবার সকাল থেকে অন্য মেজাজের চিত্র দেখা গেল বেলুড়ে। এ দিন স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিন অর্থাৎ জাতীয় যুব দিবস। আর সেই যুব দিবসে সেখানে উপস্থিত রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।
সকাল থেকেই বেলুড় মঠের ব্যস্ততা তুঙ্গে। ভোরে ঘুম থেকে উঠেই পুজো দিয়ে মঙ্গল আরতি দেখে বেলুড় মঠের সন্ন্যাসীদের সঙ্গে দেখা করেন মোদী। এর পরে যোগ দেন প্রার্থণাসভায়। বৈদিক মন্ত্র উচ্চারণ করে প্রার্থণা করেন তিনি। স্বামী বিবেকানন্দের ছবিতে মালা দেন প্রধানমন্ত্রী। পরমহংসকে নতমস্তকে প্রণাম করেন তিনি। এরপর পায়ে হেঁটে তিনি যান সভাস্থলে। সভামঞ্চে করজোড়ে স্বামীজিকে স্বরণ করেন মোদী।

স্বাগত ভাষণের পর যুবদের উদ্দেশে বার্তা দেন নরেন্দ্র মোদী। স্বরণ করেন স্বামীজিকেও। এ দিন তিনি বলেন, “বেলুড় মঠ তীর্থ যাত্রার চেয়ে কম নয়। আমার কাছে বেলুড়ে আসা মানেই ঘরে আসা। আমি ধন্য আমাকে এখানে থাকতে দেওয়া হয়েছে। স্বামীজির সংকল্পকে রূপায়ণের দ্বায়িত্ব আগামী প্রজন্মের। জনসেবাই জীবনের মূল মন্ত্র। এই ভূমিতে আসার পর মা সারদা দেবীর আঁচল মায়ের কথা মনে করায়। আমরা কখনই একা নই। আমাদের সঙ্গে আর একজন থাকেন। চোখে ধরা পড়েন না। কিন্তু সবসময় আমাদের সঙ্গেই থাকেন। তিনি ঈশ্বর। স্বামীজি চেয়েছিলেন একশো যুবক তাঁর হাতে থাকলে দেশকে পরিবর্তন করে দেবেন। আজ বিশ্বের সবচেয়ে বেশি যুবা ভারতে রয়েছেন। এই যুবার উপরই দেশের উজ্জ্বল ভবিষ্যত বলে মনে করতেন স্বামীজি। যুবার উপরই দেশের উজ্জ্বল ভবিষ্যত বলে মনে করতেন স্বামীজি। ডিজিটাল অর্থব্যবস্থায় ভারত প্রথম সারিতে রয়েছে। ১৩০কোটি দেশবাসীর জন্য সংকল্প স্থাপন করেছি। দুর্নীতির বিরুদ্ধে যুবসমাজ পথে নমেছে। বেলুড়ে এলে নতুন শক্তি পাওয়া যায়। ”

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের সাথে কানেক্টেড থাকুন

বিজ্ঞাপন

cloudservicebd.com