পলাশবাড়ী থানার অভিযানে বিকাশ হ্যাকারের কাছ থেকে হ্যাকিং এর টাকা উদ্ধার

প্রকাশিত: ১০:১৩ অপরাহ্ণ, জুন ৩০, ২০২০

পলাশবাড়ী থানার অভিযানে বিকাশ হ্যাকারের কাছ থেকে হ্যাকিং এর টাকা উদ্ধার

এসানুল হক মিলন,পলাশবাড়ী (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ

পলাশবাড়ীর হোসেনপুর গ্রামের কাঠ ব্যবসায়ী মেজবাউল হোসেনের মোবাইল ফোনে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি একটি ভুয়া মেসেজ পাঠিয়ে দিয়ে ফোন করে জানায় যে, মেজবাউল এর মোবাইলে ভুল করে অজ্ঞাত ব্যক্তির ৭,১৪০ টাকা চলে গেছে। এজন্য মেজবাউল এর বিকাশ নম্বর বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। বিকাশ নম্বর খুলতে হলে তাকে ভেরিফিকেশন পিন কোড ও পাসওয়ার্ড বলতে হবে। মেজবাউল তখন ভেরিফিকেশন কোড ও পাসওয়ার্ড হ্যাকারকে বলে দেয়। এভাবে বিকাশ হ্যাকার ভূক্তভোগী মেজবাউল এর মোবাইলে থাকা ১০,৩২৭ টাকা হ্যাক করে নেয়।





এরপর মেজবাউল হ্যাকারকে জানায় যে, তার মোবাইল একাউন্ট এখনো ফেরত আসেনি। তখন হ্যাকার মেজবাউলকে বলে আরো ১৫,০০০ টাকা তার বিকাশ একাউন্টে তোলা হলে তার অ্যাকাউন্টসহ সমুদয় টাকা ফেরত পাবে। সে অনুসারে মেজবাউল আরও ১৫,০০০ টাকা তার বিকাশ একাউন্টে ওঠানো মাত্রই সেই টাকাও নাই হয়ে যায়। এরপর বিকাশের দোকানদার মহসিন সরকার বাবলু মেজবাউলকে বলে যে, সে বিকাশ হ্যাকারের শিকার হয়েছে। তখন দোকানদার তাকে পুলিশের নিকট জন্য পরামর্শ দেয়। ভূক্তভোগী মেজবাউল উক্ত বিষয়টি পলাশবাড়ী থানা পুলিশকে অবগত করিলে পলাশবাড়ী থানা পুলিশ কর্তৃক শুরু হলো অনুসন্ধান। পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোঃ মতিউর রহমান হ্যাকিংয়ের বিষয়টি অনুসন্ধান করে মাগুরা জেলা সদর থানা এলাকা হতে জননী টিস্যু পেপার সেলসম্যান হ্যাকার হাফিজুর রহমানের নিকট হতে ২৩,০০০ টাকা উদ্ধার করে ভিকটিম মেজবাউল এর নিকট ২৯ জুন সকালে হস্তান্তর করেন।





এ বিষয়ে পলাশবাড়ী থানার ওসি মাসুদুর রহমান জানান, কোন অভিযোগ না থাকায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি। তবে কোন পাসওয়ার্ড বা ভেরিফিকেশন কোর্ড কাউকে না জানানোর পরামর্শ প্রদান করেন তিনি।

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

আমাদের সাথে কানেক্টেড থাকুন

বিজ্ঞাপন

cloudservicebd.com