কাসেম সোলেমানির হত্যার পর আন্তর্জাতিক বাজারে তেল ও সোনার দাম অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে

প্রকাশিত: ৭:৪১ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৯, ২০২০

কাসেম সোলেমানির হত্যার পর আন্তর্জাতিক বাজারে তেল ও সোনার দাম অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে

জেনারেল কাসেম সোলেমানির হত্যার বদলা হিসেবে বুধবার ইরানের ইরাকে মার্কিন সামরিক ঘাঁটি লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর আন্তর্জাতিক বাজারে তেল ও সোনার দাম অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। আমেরিকা ও ইরানের মধ্যে সংঘাতে আঘাত ও পাল্টা আঘাতের আশঙ্কাতেই তেল ও সোনার দামে এই বৃদ্ধি ঘটেছে। সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, মার্কিন অপরিশোধিত তেলের মূল্য ১.২ শতাংশ বেড়ে ব্যারেল প্রতি ৬৩ ডলারের বেশি হয়। এর আগে দাম চার শতাংশ বেড়ে গিয়েছিল।  পরে তা কিছুটা কমে।

আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে অপরিশোধিত তেলের মূল্য সূচক ব্রেন্ট ক্রুড ১.৬ শতাংশ বেড়ে প্রতি ব্যারেলে হয় ৬৯ জলার। মার্কিন ও ইরানের সংঘাতের ইঙ্গিত দেখে লগ্নিকারীরা সতর্ক হয়ে গিয়েছেন। এই সংঘাত মধ্য প্রাচ্যে তেল সরবরাহকারীদের কাছে আশঙ্কার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। ইরান ও আমেরিকার চলতি উত্তেজনা তেলের সরবরাহের ক্ষেত্রে কোনও প্রভাব ফেলবে না, এই আশায় চলতি সপ্তাহের শুরুতে অপরিশোধিত তেলের দাম কিছুটা কমেছিল। অপরিশোধিত তেলের মূল্যবৃদ্ধি বিশ্ব অর্থনীতির কাছে একটা বড় ধাক্কা হয়ে উঠতে পারে। উত্পাদন হ্রাস জনিত সমস্যা এমনিতেই অর্থনীতিতে প্রভাব ফেলেছে।

 

 

আল জাজিরা জানিয়েছে, সোনার দাম স্পট মার্কেটে প্রাথমিকভাবে প্রতি আউন্সে ১,৬০০ ডলার ছাড়িয়ে যায়।পরে সামান্য কমে দাম হয় প্রতি আউন্সে ১,৫৯৩.৫৬ ডলার। লগ্নিকারীদের নিরাপদ লগ্নির জন্য তাড়াহুড়োতেই সোনার দামে এই বৃদ্ধি। আল জাজিরা জানিয়েছে, এই মুহুর্তে নজর ইরানের হরমুজ প্রণালীতে, যেখান দিয়ে প্রতি মাসে আমেরিকায় ৩৪ মিলিয়ন ব্যারেল তেল জাহাজে করে যায়।

sf/360

শেয়ার করুন
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আমাদের সাথে কানেক্টেড থাকুন

বিজ্ঞাপন

cloudservicebd.com